শনি. সেপ্টে ২৫, ২০২১

Fortune News 24

ফরচুন নিউজ ২৪

শুভ জন্মদিন কবি শামসুর রাহমান

১ মিনিট পাঠের সময়

আধুনিক বাংলা কবিতার অন্যতম প্রধান কবি শামসুর রাহমানের ৯২তম জন্মদিন আজ। ১৯২৯ সালের এই দিনে পুরান ঢাকার মাহুতটুলির নানাবাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। বাবা মুখলেসুর রহমান চৌধুরী ও মা আমেনা বেগম। ১৩ ভাই-বোনের মধ্যে তিনি চতুর্থ।

তিনি ছিলেন একাধারে কবি, সাংবাদিক, ঔপন্যাসিক, অনুবাদক ও প্রাবন্ধিক। ১৯৪৯ সালে সাপ্তাহিক সোনার বাংলা পত্রিকায় তাঁর কবিতা প্রথম মুদ্রিত হয়। বিভিন্ন পত্রিকায় সম্পাদকীয় ও উপসম্পাদকীয় লিখতে গিয়ে সিন্দবাদ, চক্ষুষ্মান, লিপিকার, নেপথ্যে, জনান্তিকে, মৈনাকসহ বিভিন্ন ছদ্মনাম ব্যবহার করেছেন তিনি। স্বৈরশাসক আইয়ুব খানকে বিদ্রƒপ করে ১৯৫৮ সালে সিকান্দার আবু জাফর সম্পাদিত সমকাল পত্রিকায় লেখেন ‘হাতির শুঁড়’ নামক কবিতা।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যখন কারাগারে তখন তাঁকে উদ্দেশ করে লেখেন অসাধারণ কবিতা ‘টেলেমেকাস’। ১৯৭১ সালে শামসুর রাহমান লেখেন যুদ্ধের ধ্বংসলীলায় আক্রান্ত ও বেদনামথিত কবিতা ‘স্বাধীনতা তুমি’ ও ‘তোমাকে পাওয়ার জন্য হে স্বাধীনতা’। ১৯৯১ সালে এরশাদের পতনের পর লেখেন ‘গণতন্ত্রের পক্ষে কবিতা’।

সাহিত্যে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ তিনি পেয়েছেন একুশে পদক, বাংলা একাডেমি পুরস্কার, আদমজী সাহিত্য পুরস্কার, নাসির উদ্দিন স্বর্ণপদক, জীবনানন্দ পুরস্কার, আবুল মনসুর আহমদ স্মৃতি পুরস্কার। সাংবাদিকতার জন্য পেয়েছেন মিতসুবিশি পুরস্কার, স্বাধীনতা পদক, আনন্দ পুরস্কারসহ বহু পুরস্কার। ভারতের যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় ও রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয় কবিকে সম্মানসূচক ডি.লিট উপাধিতে ভূষিত করে।

১৯৫৭ সালে দৈনিক মর্নিং নিউজে সহসম্পাদক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন শামসুর রাহমান। ১৯৫৭ থেকে ’৫৯ সাল পর্যন্ত রেডিও পাকিস্তানের অনুষ্ঠান প্রযোজক ছিলেন তিনি। ’৭৭ সালে তিনি দৈনিক বাংলা ও সাপ্তাহিক বিচিত্রার সম্পাদক নিযুক্ত হন।

২০০৬ সালের ১৭ আগস্ট সন্ধ্যায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় কবি শামসুর রাহমান শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। রাজধানীর বনানী কবরস্থানে তাঁকে সমাধিস্থ করা হয়।

আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান : আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে কবি শামসুর রাহমানের ৯২তম জন্মদিন উদ্যাপন করেছে যৌথভাবে জাতীয় কবিতা পরিষদ ও শামসুর রাহমান স্মৃতি পরিষদ।

গতকাল বাংলা একাডেমিতে অনুষ্ঠিত আলোচনায় অংশ নেন শামসুজ্জামান খান, কবি আসলাম সানী, ড. জালাল ফিরোজ, কবি পিয়াস মজিদ প্রমুখ।

বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক হাবীবুল্লাহ সিরাজীর সভাপতিত্বে এতে স্বাগত বক্তৃতা করেন কবি তারিক সুজাত। কবিতা পাঠ করেন কবি সানাউল হক খান, ফারুক নওয়াজ, ঝরনা রহমান, খালেক বিন জয়েনউদ্দিন, তপন বাগচী, লিলি হক, হানিফ খান, হাসনাইন সাজ্জাদী, এম আর মনজু প্রমুখ।