শুক্র. অক্টো ২২, ২০২১

Fortune News 24

ফরচুন নিউজ ২৪

বরিশালে নাশকতার আশঙ্কা : মূল টার্গেটে ফরচুন সু কোম্পানী

১ মিনিট পাঠের সময়

বিভাগীয় শহর বরিশালে যেকোনও মুহূর্তে বড় ধরনের নাশকতার সমূহ আশঙ্কা রয়েছে বলে একাধিক সূত্র তাদের উদ্মিগ্নতার কথা জানিয়েছে। রাজনৈতিক বিরোধ নয়, জঙ্গিবাদ সত্ত্বাও নয়, তবে রাজনীতির ছত্রছায়ায় থাকা একটি দুবৃত্তায়ন চক্র প্রতিহিংসামূলক একটি মহলকে  দমিত করতে এই নাশকতার  পরিকল্পনা নিয়েছে বলে ঐ সূত্রগুলোর ধারনা।

এক্ষেত্রে বিশেষ  একটি এলাকার শিল্প প্রতিষ্ঠান বা জনমানবের উপর ধ্বংসযজ্ঞ চালানোই হচ্ছে মূল টার্গেট। ইত্যমধ্যে এই মিশন বাস্তবায়নে শহরের একটি বাসভবনে পরিকল্পনার ছক অনুসারে বেশ কিছু  রাসায়নিক দ্রব্য সংগ্রহ করে বিষ্ফোরক জাতীয় ধ্বংসাত্মক অস্ত্র তৈরী করা হয়েছে। ছাত্রত্ব নেই , নেই কেনো রাজনৈতিক পদ-পদবী তদুপরি মহানগর জুড়ে ছাত্রনেতা হিসেবে বর্তমান সময়ে শোরগোল ফেলা এক যুবক এই মিশনের ছক একেঁ নিজেই নেতৃত্বে দিচ্ছেন, এমনটি ধারনা দেয়া হচ্ছে। এই নাশকতার স্থান হতে পারে বরিশাল শিল্প নগরী বিসিক এলাকা।ঐ সূত্রগুলোর এই তথ্যের সাথে একমত পোষণ করে বিসিকের বেশ কয়েকজন ব্যাবসায়ীও একই সন্দেহের কথা জানিয়েছে। আত্মরক্ষার প্রস্তুতিতে তারাও সতর্ক এবং তাদের বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানগুলোর আশেপাশে নিজস্ব লোকবল দ্বারা সজাগ দৃষ্টি রেখেছে।

একটি সূত্র জানায়, বিসিক নিয়ে উত্তেজনায় স্থানীয় ক্ষমতাসীন মহলের সাথে সেখানকার ফরচুন সু কোম্পানীর চেয়ারম্যানের মতবিরোধ থেকে বিচ্ছিন্নভাবে অবশ্য  সংঘাত-হামলা-মামলার প্রেক্ষাপটে তৃতীয় একটি মহল এই নাশকতার জম্ন দিয়ে দায়ভার অন্যের ঘাড়ে চাপিয়ে নিজেরা নিরাপদ দূরত্বে থাকার কৌশল নিতে পারে।

সম্ভাব্য সেই ধ্বংসযজ্ঞের টার্গেট হতে পারে ফরচুন সু কোম্পানীসহ এই প্রতিষ্ঠানের উদ্যেক্তার সমর্থনকারী  সহযোগী কোনো ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠান। নতুবা ফরচুনের মালিক অথবা এই প্রতিষ্ঠানে কর্মরত শ্রমিকদের যাতায়াতে বহনকারী গণপরিবহনের উপর চোরাগুপ্ত হামলা এমনকি অগ্নিসংযোগের মত ঘটনা সংঘঠিত করার বিষয়টিও নাশকতার পরিকল্পনায় আমলে আনা হতে পারে।

আবার সম্ভাবনাও রয়েছে ফরচুন সু কোম্পানীর মালিক মিজানুর রহমান সমর্থিত বিসিক ব্যবসায়ী মালিক সমিতির বিরোধী অংশের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে আত্মঘাতী নাশকতা চালিয়ে দায়ভার বিপরীতমুখী ঠেলে দিতে পারে। যাতে ফরচুন সু কোম্পানীর মালিককে গুরুতর মামলায় ফাঁসিয়ে বরিশাল ছাড়া করতে সহায়ক পন্থা দুবৃত্তদের বিবেচনায় থাকাটাও সন্দেহ গভীর করে তুলেছে ।

ঘুরেফিরে সবারই অভিন্ন সন্দেহের বার্তা হচ্ছে, নাশকতার মূল টার্গেটেই হতে পারে ফরচুন তথা শিল্প উদ্যোক্তা মিজানুর রহমান। আজ শনিবার দুপুরে প্রসঙ্গিক এই বিষয় নিয়ে সেলফোনে মিজানুর রহমানের সাথে বরিশাল টাইমস এর পক্ষ থেকে আলাপকালে এধরনের নাশকতার সম্ভাবনার কথা বিভিন্ন মহল থেকে তাকে অবগত করে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে বলে জানালেন।

বিসিকে সরেজমিন ঘুরে যে চিত্র দেখা গেছে, তাতে এধরনের খবরের সর্বত্র একধরনের আলামত হিসেবে সেখানকার কর্মরত বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শ্রমিক কর্মচারীদের সতর্ক অবস্থান দেখা যাওয়া সহ অজ্ঞাত পরিচয় লোক দেখলে সন্দেহের চোখ অপলক দৃষ্টি ফেলার আলামত নজরে পড়ে। বিশেষ করে বিশ্বখ্যাত সু উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান ফরচুন সু কোম্পানী ও তাদের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান প্রিমিয়ার সু কোম্পানীর ফ্যাক্টরি দুটির সেই কোলাহল পরিবেশের বদলে বর্তমানে নিস্তব্ধতা পরিলক্ষিত হয়।

স্থানীয় একাধিক সূত্র অভিন্ন ভাষায় জানায়, গত ২০ জানুয়ারী রাতে ফরচুন সু কোম্পানীর মালিকের বিরুদ্ধে ক্ষমতাসীন দলের বিদ্রোহ , থানা ঘেরাও এবং মিজানুর রহমানসহ বেশ কয়েকজনের নামল্লেখ এবং অজ্ঞাত আসামীর তালিকা দীর্ঘায়িত হওয়ায় এমনিতেই গ্রেফতার আতঙ্ক। সেইসাথে একদল রাজনৈতিক দুর্বৃত্তের মহড়ায় বিসিক এখন একেবারেই স্তদ্ধ।সেই মুহূর্তে নাশকতার খবর বিরজমান আতঙ্ক থেকে সন্দেহ প্রবলভাবে ভর করেছে- কখন কী ঘটে এমন শঙ্কায়। যদিও সাম্প্রতিক উত্তেজনার আলোকে সেখানে বিপুল সংখ্যক পুলিশি নিরাপত্তা রয়েছে।

মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার সাহাবুদ্দিন খান বরিশাল টাইমস-কে আজ শনিবার পড়ন্ত দুপুরে জানালেন, এধরনের নাশকতা সৃষ্টির সম্ভাবনার তথ্যাদির খবর তার জানা নেই। তবে তিনি বিষয়টি হালকাভাবেও নিতে নারাজ। এই শীর্ষ নগর পুলিশ কর্মকর্তার ভাষায়, পুলিশ রুটিনমাফিক দায়িত্ব যেভাবে পালন করছে তা সতর্কতা নিয়েই। সেই পরিস্থিতিতে দুর্বৃত্তায়নের পথে নাশকতা ঘটিয়ে কেউ পার পাবে না বলে তিনি মন্তব্য করেন।

একটি দায়িত্বশীল গোয়েন্দা সংস্থার জনৈক এক কর্মকর্তার সাথে নাশকতার প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি নাম প্রকাশে অপারগতার শর্তে জানালেন, তাদের কাছে এধরনের তথ্য না থাকলেও বিসিক নিয়ে উত্তপ্ত বরিশাল পরিস্থিতিতে এধরনের আশঙ্কা অবান্তর নয়। সার্বিক পরিস্থিতি গুরুত্ব দিয়ে তাদের একাধিক সোর্স মাঠে কাজ করছে, পরিবেশ উপলদ্ধি ও কিছু ব্যাক্তিদের গতিবিধি পর্যবেক্ষণে।