বুধ. এপ্রি ১৪, ২০২১

Fortune News 24

ফরচুন নিউজ ২৪

হটলাইনে মায়ের ফোন, বেঁচে গেলেন প্রসূতি মা

১ মিনিট পাঠের সময়

প্রসব যন্ত্রণায় ছটফট করছিলেন গর্ভবতী মেয়ে। এমন কষ্ট দেখে মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রের হটলাইন নম্বরে কল দেন তার মা। এতে তাৎক্ষণিক মেলে সেবা। সিজারের মাধ্যমে জন্ম দেন ফুটফুটে সন্তান। মায়ের ফোনে প্রসূতি ও নবজাতক বেঁচে যাওয়ায় খুশি পুরো পরিবার।সোমবার রাতে জয়পুরহাট মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রে সন্তান প্রসব করেন তানিয়া নামে ওই গর্ভবতী। তার বাড়ি জেলার আক্কেলপুর উপজেলার চাপাডাল গ্রামে।

জানা গেছে, টাকার অভাবে কোনো ক্লিনিকে যেতে না পেরে নিজ বাড়িতেই প্রসব যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছিলেন তানিয়া। এ সময় মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রের হটলাইন নম্বরে কল দেন তার মা মরিয়ম বেগম। ফোন পেয়ে বাড়িতে তাৎক্ষণিক অ্যাম্বুলেন্স পাঠানো হয়। এরপর সোমবার রাতেই মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রে নেয়া হয়। সেখানে সিজারের মাধ্যমে সন্তান প্রসব করেন তানিয়া।

প্রসূতির মা মরিয়ম বেগম বলেন, এক প্রতিবেশীর পরামর্শে মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রের হটলাইন নম্বরে কল দেই। পরে কর্তৃপক্ষ আমাদের বিনামূল্যে সেবা দেয়। মেয়ে ও নবজাতক বেঁচে যাওয়ায় আমরা অনেক খুশি।

জয়পুরহাট পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উপ-পরিচালক ডা. জোবায়ের গালিব বলেন, প্রসব যন্ত্রণায় দরিদ্র পরিবারের এক নারী কাতরাচ্ছিলেন বলে আমাদের হটলাইন নম্বরে কলের মাধ্যমে জানতে পারি। এরপর ওই বাড়িতে অ্যাম্বুলেন্স পাঠিয়ে প্রসূতিকে মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রে আনা হয়। পরে ডা. শাহানাজ পারভীনের তত্ত্বাবধানে সিজারের মাধ্যমে সন্তান প্রসব করেন ওই নারী।