বুধ. এপ্রি ১৪, ২০২১

Fortune News 24

ফরচুন নিউজ ২৪

চীন বিশ্বে দ্বিতীয় দেশ হিসেবে চাঁদের বুকে পতাকা উড়ালো

১ মিনিট পাঠের সময়

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় ৫০ বছর পরে বিশ্বের দ্বিতীয় দেশ হিসেবে চাঁদের বুকে পতাকা স্থাপন করেছে চীন। চীনের জাতীয় মহাকাশ সংস্থার প্রকাশিত ছবিগুলিতে দেখা যায় পাঁচ তারকাযুক্ত লাল পতাকাটি বায়ুহীন চাঁদের পৃষ্ঠের ওপরে স্থাপন করেছে।

বৃহস্পতিবার পাথরের নমুনা নিয়ে চন্দ্রপৃষ্ঠ ছাড়ার আগে ছবিগুলি মহাকাশযান চ্যাং-৫ ক্যামেরা বন্দি করে।আগের দুটি চীনা চন্দ্র মিশনের পতাকা নিয়ে গেলেও তা চন্দ্র পৃষ্ঠে স্থাপন করতে পারেনি।

১৯৬৯ সালে বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে যুক্তরাষ্ট্র অ্যাপোলো-১১ মিশন নিয়ে চাঁদে প্রথম পতাকা লাগিয়েছিল। পরবর্তী পাঁচটি মার্কিন পতাকা ১৯৭২ সাল পর্যন্ত পরবর্তী মিশনের সময় চন্দ্র পৃষ্ঠে লাগানো হয়েছিল।

এর আগে ১ ডিসেম্বর যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার পর বিশ্বের তৃতীয় দেশ হিসেবে চাঁদের নমুনা সংগ্রহে চীনের পাঠানো মানুষবিহীন মহাকাশযান সফলভাবে চন্দ্রপৃষ্ঠে অবতরণ করে।

চীনা কর্তৃপক্ষের দাবি করে, ৭ হাজার ৫০০ নিউটনের ইঞ্জিনের চাপ দিয়ে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ১৫ মিনিট উড্ডয়নের পরে ৩টা ১৫ মিনিটে মহাকাশযান চ্যাং’ই-৫ চাঁদের পৃষ্ঠে অবতরণ করে।

মহাকাশযানটি চাঁদের ঝড়ের সমুদ্র নামের স্থানের নিকতবর্তী একটি উচ্চ আগ্নেয়গিরির লক্ষ্য করে এগিয়ে যাবে। তার আশেপাশে পরীক্ষা করে এবং পৃষ্ঠের উপকরণ সংগ্রহ করার জন্য কয়েকদিন ব্যয় করবে বলে আশা করা হয়।

অভিযানের সুবিধার্থে ক্যামেরা, স্পেকট্রোমিটার, রাডার, একটি স্কুপ এবং একটি ড্রিলসহ বেশ কয়েকটি যন্ত্র রয়েছে যানটিতে।

চ্যাং’ই-৫ মহাকাশযানের নামকরণ করা হয় চীনা প্রাচীন চাঁদের দেবীর নামানুসারে। লং মার্চ ৫ রকেটে করে এই মহাকাশযানটি উৎক্ষেপণ করা হয়। চাঁদের ঝড়ের সমুদ্র নামের অনুন্মোচিত অংশ থেকে ২ কেজি নমুনা সংগ্রহ করে নিয়ে আসতে চেষ্টা করবে সে। চাঁদের উৎস ও গঠন বোঝার কাজে সাহায্য করবে।

এই ধরনের সর্বশেষ অভিযানের নাম ছিলো লুনা ২৪। সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়ন ১৯৭৬ সালে তা পরিচালনা করে। ১৯৭৬ সালের ওই অভিযানে যেখানে সংগ্রহ করা হয়েছিলো ১৭০ গ্রাম নমুনা। আর অ্যাপোলো অভিযানে মানুষ গিয়ে সংগ্রহ করেছিলো ৩৮২ কেজি মাটি ও পাথর।

১৯৭০ সালের পর প্রথমবারের মতো চাঁদের পাথর পুনরুদ্ধারের প্রচেষ্টা শুরু করে চীন। মানুষবিহীন চ্যাং’ই-৫ প্রব গত ২৪ নভেম্বর ওয়েনচ্যাং স্পেস সেন্টার থেকে উৎক্ষে