রবি. এপ্রি ১১, ২০২১

Fortune News 24

ফরচুন নিউজ ২৪

ভালো ব্যাট করলে ম্যাচ আমাদের নিয়ন্ত্রণে থাকতো : তামিম

১ মিনিট পাঠের সময়

দ্বিতীয় ম্যাচে ঘুরে দাঁড়ালেও তৃতীয় ম্যাচে এসে আবারো হোঁচট খেয়েছে ফরচুন বরিশাল। বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের সপ্তম ম্যাচে সোমবার (৩০ নভেম্বর) গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের মুখোমুখি হয়েছিল তামিমের দল। ভালো শুরুর ইঙ্গিত দিলেও শেষপর্যন্ত জয়বঞ্চিত থেকেই মাঠ ছাড়তে হয় বরিশালকে, চট্টগ্রাম পায় ১০ রানের জয়।

দলের আগের ম্যাচের জয়ের নায়ক তামিম এদিনও এগোচ্ছিলেন অধিনায়কোচিত ইনিংসের পথে। ১টি চার আর ২টি ছক্কায় ৩২ বলে ৩২ রান করে অবশ্য সাজঘরে ফিরতে হয় তাকে। ম্যাচ শেষে তামিম জানান, তার পাশাপাশি আফিফ হোসেন ধ্রুব ইনিংস বড় করতে ব্যর্থ হওয়াতেই পরাজয় বরণ করে নিয়েছে দল।

তামিম বলেন, ‘টি-টোয়েন্টিতে ২০-৩০ রানে আউট হয়ে যাওয়া পাপের মত। কারণ আমরা যথেষ্ট বল খেলতে পারি, উইকেটের আচরণ যাচাই করতে পারি। আমি আর আফিফ যেহেতু উইকেটে অনেকক্ষণ থেকেছি, আমাদের অন্তত একজনের উচিৎ ছিল ম্যাচ শেষ করে আসা। আমরা দুইজনই অভিজ্ঞ, আমাদের দায়িত্ব নেওয়া উচিৎ ছিল।’

ব্যাট হাতে দারুণ শুরু পেয়েছিল চট্টগ্রাম। কিন্তু বরিশাল একপর্যায়ে রানের গতি টেনে ধরে। শেষদিকে আবারো মারকুটে ব্যাটিং চালায় চট্টগ্রাম। তামিম বলেন, ‘তারা ব্যাট হাতে ভালো শুরু করেছিল, এরপর আমরাও ম্যাচে ফিরেছিলাম। উইকেট ব্যাটিংয়ের জন্য এত ভালো ছিল না। আমরা ১৫ রানের মত অতিরিক্ত দিয়ে ফেলেছি। গুরুত্বপূর্ণ সময়ে একটি ক্যাচ হাতছাড়া করেছি। এক ওভারে তিনটি ছক্কা হজম করতে হয়েছে। তবে খেলোয়াড়দের দোষ দেওয়ার কিছু নেই, এটা খেলারই অংশ। ব্যাট হাতে আমরাও ভালো শুরু পেয়েছিলাম। কিন্তু একপর্যায়ে উইকেট হারাতে থাকি। হৃদয় আর ইরফানের উইকেট বেশি মূল্যবান ছিল, কারণ তখন আমরা ম্যাচে টিকে ছিলাম।’

অবশ্য জয়-পরাজয় ভুলে তামিম আপাতত খেলা উপভোগ করে যেতে চান। তিনি বলেন, ‘মূল বিষয় হল আমরা খেলা উপভোগ করছি কি না। ফলাফল বড় কথা নয়। প্রথম ম্যাচে অনেক রোমাঞ্চকর ছিল। পরের ম্যাচে ঘুরে দাঁড়িয়েছি। আজকে আবার হারলাম। আমরা এই ম্যাচ থেকে কিছু শিক্ষা নিতে পারি। কারণ জয় কখনোই অসম্ভব ছিল না। ঐ দুই উইকেটই পার্থক্য গড়ে দিয়েছে। ঐ সময়ে ভালো ব্যাট করলে ম্যাচ আমাদের নিয়ন্ত্রণে থাকতো।’