বুধ. অক্টো ২১, ২০২০

Fortune News 24

ফরচুন নিউজ ২৪

টাকা ও স্মার্টফোনে করোনা থাকতে পারে চার সপ্তাহ পর্যন্ত

১ মিনিট পাঠের সময়

কাগুজে মুদ্রায় করোনাভাইরাস চার সপ্তাহ পর্যন্ত থাকতে পারে বলে জানিয়েছে অস্ট্রেলিয়ার এ দল গবেষক। একইভাবে গ্লাসসহ অন্য পদার্থের উপরিভাগেও টিকে থাকতে পারে করোনাভাইরাস। এক গবেষণার সূত্র দিয়ে অস্ট্রেলিয়ার শীর্ষ স্থানীয় বায়োসিকিউরিটি ল্যাবরেটরি এ দাবি করেছে। গবেষণাটিতে কাগুজে মুদ্রায় করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব এবং স্থায়ীত্বের বিষয়ে গুরুত্ব দেয়া হয়।

রোববার (১১ অক্টোবর) নিউ ইয়র্ক ভিত্তিক গণমাধ্যম ব্লুমবার্গ এক প্রতিবেদনে ভাইরলজি জার্নালের উদৃতি দিয়ে এই গবেষণার বিষয় বস্তু তুলে ধরে।

অস্ট্রেলিয়ার সেন্টার ফর ডিজিজ প্রিপ্রেডনেসের বিজ্ঞানীরা দাবি করেন, এসএআরএস-কোভিড-২ খুবই শক্তিশালি। একই সঙ্গে এটি অন্তত ২৮ দিন পর্যন্ত মোবাইলফোনের স্ক্রিন, প্লাস্টিকের বস্তু এবং ব্যাংক নোটে থাকতে পারে। ২০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রার একটি কক্ষে করোনাভাইরাস টিকে থাকতে পারে আরো বেশি সময় ধরে। তবে ভাইরাসটি বস্তুতে ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় সর্বোচ্চ দশ ঘণ্টা বেঁচে থাকতে পারে।

গবেষণায় বলা হয়, গ্রিস্মের চেয়ে শীতকালে করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণ সবচেয়ে কঠিন হবে। কারণ এটি কম তাপমাত্রায় বেশি সময় ধরে টিকে থাকতে পারে। এই গবেষণাটি করোনা মোকাবেলায় একটি উল্লেখ যোগ্য দলিল হিসেবে কাজ করবে বলে মনে করেন এর প্রধান গবেষক ডেবি ইগলস।

তিনি বলেন, ‘আমাদের গবেষণায় দেখা গেছে এসএআরএস-কোভিড-২ অনেক সময় ধরে টিকে থাকতে পারে বিভিন্ন বহুল ব্যবহৃত বস্তুতে। তাই আমাদের অবশ্যই সবাইকে নিয়মিতভাবে ঘন ঘন হাত ধুতে হবে। একই সঙ্গে আশপাশের বহুল ব্যবহৃত আসবাবপত্র, মোবাইল ফোনসহ তৈজসপত্রগুলো বেশি বেশি জিবাণুমুক্ত করতে হবে।

গবেষণায় উল্লেখ করা হয়, বাতাস আসা যাওয়া করতে পারে এমন বস্তু, যেমন কাপড় বা সুতার তৈরি জিনিসের চেয়ে কঠিন বস্তু বা যেসব বস্তুর মধ্য দিয়ে বাতাস আসা যাওয়া করতে পারে না, (যেমন গ্লাস, ধাতব পদার্থ, মোবাইলফোন) এমন ক্ষেত্রে করোনা বেশি স্থায়ী হতে দেখা গেছে।