শুক্র. অক্টো ২৩, ২০২০

Fortune News 24

ফরচুন নিউজ ২৪

বাস্তবায়নের পথে স্বপ্নের মীরগঞ্জ সেতু

১ মিনিট পাঠের সময়

বরিশালের নদী বেষ্টিত উপজেলা মুলাদী, হিজলা এবং মেহেন্দিগঞ্জ। এ তিন উপজেলাবাসির চলাচলের একমাত্র মাধ্যম হচ্ছে নদী পথ। হয়তো লঞ্চ আর নয়তো ফেরি কিংবা ট্রলার পারাপার করে বরিশালের সাথে যোগাযোগ এ তিনটি উপজেলার মানুষের।

তাছাড়া বাবুগঞ্জ ও মুলাদী উপজেলা নিয়ে গঠিত বরিশাল-৩ আসনটি বিভক্ত করে রেখেছে আঁড়িয়াল আড়িয়াল খাঁ নদী। প্রতিবার জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে প্রার্থীদের নির্বাচনী প্রধান ইসতেহার হিসেবে আঁড়িয়াল খাঁ নদে ব্রিজ নির্মানের বিষয়টিই অগ্রাধিকার পায়। কিন্তু আদৌ তার বাস্তবায়ন করতে পারেননি কোন সংসদ সদস্য। তাই বহু বছর থেকেই আঁড়িয়াল খাঁ নদের ওপর সেতু নির্মান প্রাণের দাবি হয়ে দাড়ায় চারটি উপজেলাবাসির।

অবশেষে তাদের সেই স্বপ্ন বাস্তবে রূপ নিতে চলেছে। স্থানীয় সংসদ সদস্য ও জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা গোলাম কিবরিয়া টিপু’র আবেদনের প্রেক্ষিতে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ে আঁড়িয়াল খাঁ নদের ওপর সেতু নির্মান প্রকল্প গ্রহন করেছে। এ প্রকল্পের নাম দেয়া হয়েছে ‘রহমতপুর-বাবুগঞ্জ-মুলাদী-হিজলা সড়কের আট কিলোমিটার অংশে জেড ৮০৩৪ শীর্ষক প্রকল্পের প্রিলিমিনারি উন্নয়ন প্রকল্প প্রাস্তব (পিডিপিপি) আঁড়িয়াল খা নদের ওপর সেতু নির্মাণ। যা চলতি অর্থ বছরে এডিপিতে বরাদ্দবিহীন নতুন প্রকল্প তালিকার ১৩০৯ নম্বর স্মারকে অন্তর্র্ভূক্ত করা হয়েছে।

প্রস্তাবিত এই সেতুর মূল দৈর্ঘ্য ১০০২ মিটার ও এপ্রোচ সড়ক ৩ কিলোমিটার। যার প্রাক্কলিত ব্যয় ধরা হয়েছে ৭১৪৮৭৫৯ টাকা। এর বাস্তবায়নকাল ১লা জানুয়ারি থেকে ২০২৩ সালের জুন পর্যন্ত প্রস্তাব করা হয়েছে। তবে কেব নাগাদ স্বপ্নের এই সেতু বাস্তবায়ন কাজ শুরু হবে তা নিশ্চিত নন সড়ক জনপথ ও সেতু বিভাগ।

বরিশাল-৩ (মুলাদী-বাবুগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য গোলাম কিবরিয়া টিপু জানান, ‘আঁড়িয়াল খাঁ নদে সেতু নির্মাণের প্রধান অন্তরায় অর্থায়ন। চলতি বছরেই অর্থনৈতিক সমস্যা সমাধান হলে সেতু নির্মাণ কার্যক্রম বাস্তবে রূপ নেবে।

স্থানীয় জনপ্রতিণিদরা বলছেন, ‘মীরগঞ্জে আঁড়িয়াল খাঁ সেতু স্থাপিত হলে শুধু মুলাদী, বাবুগঞ্জ, হিজলা ও মেহেন্দিগঞ্জবাসীই উপকৃত হবে না, বরং বিভাগীয় শহর বরিশালের সড়কপথে দূরত্বও কমে আসবে।

স্থানীয় একটি সূত্র জানায়, ‘মীরগঞ্জ পয়েন্টে সেতুর সম্ভাবতা নিয়ে পিপি সওজের ঊর্ধ্বতন দপ্তরের প্রেরিত হয়েছে গত বছরে। এ নিয়ে সরকারের উচ্চ পর্যায়ে থাকা কয়েকজন আমলারও সাম্প্রতিক সময়ে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। অর্থ বরাদ্দ পেলেই এটি বাস্তবায়ন সময়ের ব্যাপার মাত্র।

সেতু নির্মাণ প্রসঙ্গে সংসদ সদস্য গোলাম কিবরিয়া টিপু আরও বলেন, ‘সরকারের সম্ভাব্য সেতু নির্মাণ প্রকল্পের গুরুত্বপূর্ণ একটি হচ্ছে মীরগঞ্জ সেতু। করোনা সংকট শুরুর আগে দাতা সংস্থা জাইকার সঙ্গে আলোচনা করে সেতুটির গুরুত্ব বোঝাতে সক্ষম হয়েছে সরকার। তাদের সম্ভাব্য স্থান পরিদর্শনে আসারও কথা। এরই মধ্যে করোনা সংকট শুরু হওয়ায় বিষয়টি পিছিয়ে যায়। তবে এ বছরের মধ্যে এসব প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে বলে মনে করছেন এই সংসদ সদস্য।

প্রসঙ্গত, বরিশাল-৩ আসনের সংসদ সদস্য গোলাম কিবরিয়া টিপু’র নির্বাহী ইসতেহারের মধ্যে আঁড়িয়াল খাঁ সেতু নির্মান অন্যতম। এ কারণেই তিনি চার উপজেলাবাসির প্রাণের দাবি মীরগঞ্জে সেতু নির্মানে বেশ দৌঁড়ঝাপ করছেন। তার প্রচেষ্টাতেই বহুল কাঙ্খিত এই সেতুটি বাস্তবায়নের পথে এগিয়ে যাচ্ছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।