রবি. সেপ্টে ২০, ২০২০

Fortune News 24

ফরচুন নিউজ ২৪

বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল পেল জাতিসংঘের সম্মাননা

১ মিনিট পাঠের সময়
তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ পুরস্কার “ওয়ার্ল্ড সামিট অন ইনফরমেশন সোসাইটি (ডাব্লিউএসআইএস) পুরস্কার-২০২০” অর্জন করেছে সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল। ৯ম বার্ষিক পুরস্কারের এই আয়োজনে ই-এমপ্লয়মেন্ট বিভাগে পুরস্কারটি জিতেছে বাংলাদেশ।

সোমবার অনলাইনে অনুষ্ঠিত “ডাব্লিউএসআইএস ফোরাম ২০২০” পুরস্কার প্রদান আয়োজনে আন্তর্জাতিক টেলিকমিউনিকেশন্স ইউনিয়নের (আইটিইউ) মহাসচিব হাওলিন ঝাও এই ঘোষণা দেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ইউএন এসকেপ এর নির্বাহী সচিব আর্মিদা সালসিয়া আলিসজাবানা, আইটিইউ থেকে ক্যাটালিন ম্যারিনেসক, ডমিনিক্যান রিপাবলিক-এর রাষ্ট্রদূত ক্যাটরিনা ন্যাট, ইন্টারন্যাশনাল সিভিল অ্যাভিয়েশন অর্গানাইজেশনের মহাসচিব ফ্যাং লিউ সহ অনেকেই।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক কম্পিউটার কাউন্সিলের এই অর্জনে অভিনন্দন জানিয়েছেন। “ওয়ার্ল্ড সামিট অন ইনফরমেশন সোসাইটি অ্যাওয়ার্ড-২০২০” এর এই অ্যাওয়ার্ডটি ভবিষ্যতে আরোও বিভিন্ন সফল উদ্যোগ নিতে সকলকে অনুপ্রাণিত করবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেছেন।

এ অর্জনের বিষয়ে বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের (বিসিসি) এর নির্বাহী পরিচালক পার্থপ্রতিম দেব বলেন, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল বাংলাদেশ সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়বার জন্য বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণের মাধ্যমে নিরলস চেষ্টা করছে। এরই একটি সফলতার নিদর্শন হল এই পুরস্কার।

ডব্লিউএসআইএসির এই প্রতিযোগিতায় সরকারি, বেসরকারি, সাধারণ নাগরিক, আন্তর্জাতিক সংস্থা ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রকল্প জমা দেওয়ার পাশাপাশি ডাব্লিউএসআইএস-এর অংশীদাররা অংশ নেওয়ার সুযোগ পেয়ে থাকেন। বিশ্বের শতাধিক দেশ থেকে প্রাপ্ত আবেদনের থেকে বিভিন্ন প্রক্রিয়ায় বাছাই ও অনলাইন ভোটিং প্রক্রিয়ার শেষে চূড়ান্ত বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়।

প্রতিযোগিতায় মোট ১৮টি শ্রেণিতে ৭৬২টি প্রকল্প জমা পড়েছিল। শেষ পর্যন্ত, প্রতিটি শ্রেণিতে ৪টি করে মোট ৭২টি প্রকল্পকে চ্যাম্পিয়ন হিসেবে এবং সেরা প্রকল্প হিসেবে প্রতিটি শ্রেণিতে একটি করে মোট ১৮টি প্রকল্পকে চূড়ান্ত বিজয়ী হিসেবে ঘোষণা করা হয়। ই-এমপ্লয়মেন্ট শ্রেণিতে ফিলিপিন্স, সৌদিআরব, ইসরাইল ও বাংলাদেশ মনোনয়ন পায় এবং বাংলাদেশ চূড়ান্ত বিজয়ী হয়।

এই প্ল্যাটফর্মটিতে ই-রিক্রটমেন্ট, এক্সাম কন্ট্রোলার ও অনলাইন এক্সামসহ মোট ৩টি মডিউল রয়েছে বলে জানিয়েছে কম্পিউটার কাউন্সিল। প্ল্যাটফর্মটি ইতোমধ্যে সফলভাবে ২৫টিরও বেশি সরকারি সংস্থা/প্রকল্প তে ব্যবহার হচ্ছে এবং প্রায় ১৮০০ এর অধিক আবেদনকারির নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে। গত ২ বছরেরও বেশি সময় ধরে এই সিস্টেমটি প্রায় ৬০ টি পদের নোটিসের মাধ্যমে ৭০ টির বেশি পদে প্রায় ১,৭০,০০০ টি অনলাইন আবেদন প্রসেস করেছে বলে জানিয়েছে।