রবি. সেপ্টে ২০, ২০২০

Fortune News 24

ফরচুন নিউজ ২৪

দ্রুত করোনার ভ্যাকসিন তৈরির রহস্য জানালো রাশিয়া

১ মিনিট পাঠের সময়

মহামারী করোনা ভাইরাসের কড়াল থাবায় বিপর্যস্ত পুরো পৃথিবী। করোনার প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে বিশ্বের বাঘা বাঘা গবেষণা প্রতিষ্ঠান ভ্যাকসিন আবিষ্কারে দিন রাত পরিশ্রম করে যাচ্ছে। তবে সবাইকে তুড়ি মেরে করোনার ভ্যাকসিন এনে বাজিমাত করেছে রাশিয়ার গামালেয়া গবেষণা ইনস্টিটিউটে।

এদিকে এত তাড়াহুড়োয় বানানো রাশিয়ার করোনা ভ্যাকসিন আদতে কতটা কার্যকরী হবে, তা নিয়ে অনেকের মনেই প্রশ্ন রয়েছে। এমনকি WHO-এর কাছ থেকেও রাশিয়ার ভ্যাকসিন নিয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশের মতো কিছু শোনা যায়নি।

তবে তাদের সাফল্য নিয়ে যাবতীয় সন্দেহকে উড়িয়ে দিয়ে রাশিয়া দাবি করেছে, ইবোলা (Ebola) ও মার্সের (MERS) মতো ভয়ংকর ভাইরাসের ভ্যাকসিন নিয়ে কাজ করার অভিজ্ঞতা থেকেই মাত্র পাঁচ মাসের মধ্যে তারা কোভিডের (COVID-19 vaccine) টিকা Sputnik V বানাতে সক্ষম হয়েছে।

শনিবার এ কথা জানিয়েছেন মস্কোর গামালেয়া গবেষণা ইনস্টিটিউটের প্রধান আলেকজান্ডার গিন্সবুর্গ। করোনার ভ্যাকসিন বাজারে আনতে তারা যে তাড়াহুড়ো করেননি, তা বুঝিয়ে দেন গামালেয়া গবেষণা ইনস্টিটিউটের প্রধান।

আলেকজান্ডারের দাবি, পুরো প্রজন্মের বায়োটেকনিশিয়ান, ভাইরোলজিস্টস ও ইমিউনোলজিস্টরা মিলে ২০ বছরেরও বেশি সময় ধরে এমন প্রযুক্তি তৈরি করছেন, যা এই ভ্যাকসিন তৈরিতে কাজে লাগানো হয়েছে। সেইসঙ্গে কমপক্ষে আরও ৬টি ওষুধেরও প্রয়োগ হয়েছে।

আগাম ঘোষণা মতো করোনা ভ্যাকসিনের খুচরা উৎপাদন এরই মধ্যে শুরু করে দিয়েছে রাশিয়া। শনিবার রুশ বার্তা সংস্থা ইন্টারফ্যাক্সের তরফে তা জানানো হয়। বিশ্বে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে রাশিয়াই প্রথম ভ্যাকসিন আবিষ্কার করে। মস্কোর গামালেয়া ইনিস্টিটিউটের তৈরি এই টিকার নাম রাখা হয় Sputnik V।

রাশিয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রী মিখাইল মুরাশকো জানান, আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে করোনা টিকার প্রথম ব্যাচ বাজারে ছাড়া হবে। পশ্চিমা বিশ্ব রুশ টিকাকে নিরাপদ নয় বলে যে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে, তা-ও নাকচ করে দেন মুরাশকো।

তিনি বলেন, প্রতিদ্বন্দ্বীরাই এমন কথা বলছে। একইসঙ্গে তিনি জানান, এই টিকা গ্রহণকারীরা কোনও সমস্যায় পড়ছেন কি না, তা পর্যবেক্ষণে বিশেষ একটি অ্যাপ তৈরি করা হচ্ছে।

গত মঙ্গলবার রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন করোনা টিকা আবিষ্কারের কথা আনুষ্ঠানিক ভাবে ঘোষণা করেন। তিনি দাবি করেন, তার দেশ রাশিয়া করোনা প্রতিরোধের ভ্যাকসিন আবিষ্কারে বিশ্বে প্রথম হয়েছে।

১১ অগস্ট বিশ্বের প্রথম ভ্যাকসিন হিসেবে ‘স্পুটনিক ভি’ অনুমোদনের কথা জানান রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। রাশিয়ার তৈরি এ টিকা যথেষ্ট কার্যকর বলেও দাবি করেন পুতিন। তবে তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল শেষ হওয়ার আগে অনুমোদন পাওয়ায়, এটির কার্যকারিতা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের গবেষকরা।

এর মধ্যেই কিন্তু ভারতসহ ২০টির বেশি দেশ রাশিয়ার স্পুটনিক-ভি নিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। ভিয়েতনামও টিকাটির ৫-১৫ কোটি ডোজ পেতে চুক্তি করেছে। এর একাংশ রাশিয়া ‘অনুদান’ হিসেবে দেবে, বাকিগুলো কিনবে ভিয়েতনাম।